সুস্বাদু গরুর কলিজা ভুনা রেসিপি।

আসালামুআলাইকুম,
20210707_194049.jpg

হ্যালো,
চলে এসেছি আবার একটি সুস্বাদু নতুন রেসিপি নিয়ে।
আমার আজকের রেসিপির নাম গরুর কলিজা ভুনা।

গরুর কলিজাতে প্রচুর পুষ্টি গুন রয়েছে আমরা সবাই জানি।এছাড়া গরুর কলিজা খেতে অনেক সুস্বাদু ।আমরা অনেকে কলিজা খেতে পছন্দ করি।আমি এবং আমার বাচ্চারা গরুর কলিজা ভুনা খেতে খুব পছন্দ করে।কলিজা তেমন খাওয়া হয়না।
বিশেষ কোনো দিনে গরুর কলিজা বাজার থেকে কিনে আনা হয়। সব সময় খাওয়া হয়না,কারণ গরুর কলিজা প্রচুর দাম এছাড়াও বাজারে কম পাওয়া যায়।
গরুর কলিজার চাহিদা বেশি তাই হয়ত।

তাহলে কথা না বাড়িয়ে, গরুর কলিজা ভুনা কিভাবে খুব সহজে রান্না করা যায়। তা আমি আপনাদের ধাপে ধাপে দেখায়। তাহলে চলুন।
20210707_194740.jpg
উপকরণ
গরুর কলিজা 1 -কেজি,

পেয়াজ 2-টি,

আদা বাটা 1/2 চামচ,

রসুন বাটা 1/3 চামচ,

লাল মরিচ গুড়া 1/4 চামচ,

হলুদ গুড়া 1/2 চামচ,

জিরা,ধনিয়া গুড়া 1/3 চামচ,

এলাচ,দারুচিনি,লং,গুল মরিচ গুড়া 1/2 চামচ,

তেজপাতা 2-টি,

সয়াবিন তেল 5-চামচ,

লবন স্বাদ মত,
20210707_194308.jpg

প্রস্তুত প্রণালীঃ
প্রথমে গরুর কলিজা গুলো মাঝারি আকারে টুকরো করে নিব।টুকরো করা হলে হালকা গরম পানি দিয়ে ধুয়ে নিয়ে নরমাল পানি দিয়ে পরিষ্কার করে ধুয়ে নেব।

গরম পানি দিয়ে কলিজার টুকরো ধুয়ে নিলে।জমাট বাঁধা রক্ত পরিষ্কার হয়ে যায় এবং কলিজায় বাপসা গন্ধটা থাকে না। রান্না করে খাওয়ার সময় খেতে অনেক সুস্বাদু লাগে।
20210707_194719.jpg
কলিজা ধুয়া হয়ে গেলে।চুলায় একটা পাতিলে পাঁচ চামচ সয়াবিন তেল দিব।তেল গরম হলে পেয়াজ কুচি এবং তেজপাতা পাতিলে দিয়ে ভাজবো।
20210707_194239.jpg
পেয়াজের রং হালকা বাদামি হলে আদা,রসুন বাটা পেয়াজের সাথে দিয়ে কিছুক্ষণ ভাজব।
20210707_194219.jpg
তারপর পেয়াজ,আদা,রসুনের সাথে একে একে সব মসলা দিয়ে কিছুক্ষণ চুলার মাঝারি আঁচে মসলা গুলো কষাব।
মসলা কষানো সময় চামচ দিয়ে কিছুক্ষণ পর পর নেড়েচেড়ে দিতে হব।
20210707_194201.jpg
মসলা কষানো হলে,ধুয়ে রাখা কলিজার টুকরো গুলো মসলার সাথে দিয়ে।চুলার মাঝারি আঁচে দুই মিনিট কষাব।

আমার মা বলত, মাংস অথবা যেকোন তরকারি যত কষানো হবে তত নাকি স্বাদ বারে।আমার মায়ে এই কথাটি আমি বিশ্বাস করি।সত্যি বেশি কষানো হলে তরকারির স্বাদটা অসাধারণ হয়।
20210707_194141.jpg
কষানো হলে, পরিমাণ মত পানি দিয়ে কলিজা রান্না করবো।চুলার মাঝারি আঁচে 15 মিনিট রান্না করবো।
20210707_194120.jpg

তারপর কলিজা ঝোল শুকিয়ে এলে। চামচের সাহায্যে কিছুক্ষণ নেড়েচেড়ে ভুনা করে নিব।ভুনা হলে চুলা বন্ধ করে দিব।
20210707_194027.jpgকলিজা ভূনা গরম ভাত, পোলাওর সাথে খেতে অনেক ভালো লাগে।আমি গরম ভাতের সাথে খেতে খুব পছন্দ করি।

আমার রান্না করা কলিজা ভুনা। আপনাদের যদি ভালো লাগে অবশ্যই করে রান্না করে খেয়ে দেখবেন। আশা করি আপনাদের খুব ভাল লাগবে।
20210707_194004.jpg

H2
H3
H4
3 columns
2 columns
1 column
2 Comments